তাজা খবর:

কাটাতারের বেড়াটা ছুঁতে দিলো না মাকে....                    নড়াইল-২ আসনে আ`লীগের প্রার্থী মাশরাফি-বিন-মর্তুজার কর্মী সমাবেশ                    সিরাজদিখানে দর্জীর লাশ উদ্ধার, পুলিশ বলছে হত্যাকান্ড                    পাবনায় ক্রিকেট খেলাকে কেন্দ্র করে কিশোর খুন                    হারুন হত্যার ৫৭ দিন পর মামলা রেকর্ড করলো পুলিশ                    রংপুরে জামায়াতের গোপন বৈঠক, আমীরসহ গ্রেফতার ৮                    অহনা হত্যাকান্ডের লোমহর্ষক বর্ণনা দিল চাচাতো বোন                    কালীগঞ্জের মাহবুবুর রহমান দম্পতির একসঙ্গে ৪ সন্তান লাভ                    বাঘায় রনির পুকুরে পেলো বিরল প্রজাতির মাছ                    প্রেমের টানে যুক্তরাষ্ট্রের যুবতী ছুটে আসলেন বরিশাল                    
  • মঙ্গলবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫

মেলান্দহে আ`লীগ-বিএনপির সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত-১০॥গ্রেফতার-৬

মেলান্দহে আ`লীগ-বিএনপির সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত-১০॥গ্রেফতার-৬

জামালপুর প্রতিনিধি॥জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার দুরমুঠ এলাকায় বিএনপির প্রার্থীর মাজার জিয়ারাত করার জন্য যাবার

টাকা ছাড়া কাজ হয় না যশোর বিআরটিএ অফিসে

টাকা ছাড়া কাজ হয় না যশোর বিআরটিএ অফিসে

যশোর বিআরটিএ অফিসের দুর্নীতি চরম আকার ধারণ করেছে। ঘুষ ছাড়া মোটরযান রেজিস্ট্রেশন ও

রৌমারীর সীমান্তে বুনো হাতির মৃত্যু !

রৌমারীর সীমান্তে বুনো হাতির মৃত্যু !

কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার বড়াইবাড়ি সীমান্তে বুনো হাতির মৃত্যু হয়েছে। ভারত থেকে নেমে আসা

মনিরামপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে গলা কেটে হত্যা

মনিরামপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থীকে গলা কেটে হত্যা

যশোরের মনিরামপুরে শিমুল হোসেন (১৪) নামের এক এসএসসি পরীক্ষার্থীকে গলা কেটে হত্যা করেছে

৪০ বছর পর ফিইরা আইছে, ভাবছিলাম বোনডা মইরা গেছে’

এফএনএস অনলাইন

18 Jul 2018   11:10:14 AM   Wednesday BdST
A- A A+ Print this E-mail this
 ৪০ বছর পর ফিইরা আইছে, ভাবছিলাম বোনডা মইরা গেছে’

১৯৭৮ সালের কথা। ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের খারুয়া মুকুন্দ গ্রামের ইন্তাজ আলী-সমতা খাতুন দম্পতির অভাবের সংসার। সন্তানদের মুখে খাবার তুলে দিতে পাড়তেন না তারা। একদিন দুই মেয়ে সন্তান সাজেদা ও মল্লিকাকে গফরগাঁও রেলওয়ে স্টেশনে নিয়ে যায়। সেখান থেকে মেয়ে দুটিকে ঢাকাগামী একটি ট্রেনে তুলে দিয়ে ‘বিস্কুট ও চকলেট’ কিনতে যাওয়ার কথা বলে চলে যান বাবা ইন্তাজ।

ট্রেনটি টঙ্গী স্টেশনে থামলে স্থানীয় এক ব্যক্তির চোখে পড়ে দুটি শিশু কান্না করছে। কিন্তু সঙ্গে তাদের অভিভাবক
নেই। পরে ওই ব্যক্তি সাজেদা ও মল্লিকাকে ট্র্রেন থেকে নামিয়ে দত্তপাড়ায় একটি মাতৃসদনে নিয়ে যান। সেখানে তাদের ভর্তি করে দেন।

এরপর ১৯৮০ সালের দিকে নেদারল্যান্ডস থকে এভার্ট বেকার ও মেরিয়ান্ট রেজল্যান্ড নামের এক নিঃসন্তান দম্পতি বাংলাদেশে আসেন। তারা টঙ্গীর ওই মাতৃসদন থেকে শিশু মল্লিকাকে দত্তক নেন। এর কিছুদিন পরে ওই দম্পতির মাধ্যমে নেদারল্যান্ডসের আরেকটি পরিবার মল্লিকার ছোট বোন সাজেদাকেও দত্তক নেন। সেখানেই সাজেদা ও মল্লিকা বড় হয়। পরিবারের কাছে তাদের মাতৃভূমি বাংলাদেশ জানতে পারলেও প্রকৃত আত্মপরিচয় জানতে পারেননি তারা।

এরমধ্যে সাজেদা ও মল্লিকা একাধিকবার বাংলাদেশ ঘুরে গেলেও স্বজনের খোঁজ পাননি। এ নিয়ে বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ‘ইত্যাদি’তেও একটি প্রতিবেদন প্রচার হয়। এর সূত্র ধরে অনেকেই তাদের হারিয়ে যাওয়া সন্তানের জন্য বিভিন্ন মিডিয়া ও ইত্যাদি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এর মধ্যে গফরগাঁও থেকে সাজেদা ও মল্লিকার স্বজনরাও যোগাযোগ করেন। তাদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ডিএনএ পরীক্ষার মাধ্যমে সাজেদা ও মল্লিকার আসল পরিচয় মেলে। মল্লিকার ভাই ছুতু মিয়া (৫৫) ও বোন ছুলেমান নেছারের (৬০) ডিএনএ রিপোর্ট নেদারল্যান্ডসে পাঠানোর পর পরীক্ষা-নিরীক্ষায় নিশ্চিত হয় তাদের পরিচয়।

১৬ জুলাই, সোমবার বিকেলে ইত্যাদির একটি টিমের সঙ্গে মল্লিকার স্বামী থমাস ও দুই কন্যাসন্তানকে নিয়ে খারুয়া মুকুন্দ গ্রামের বাড়িতে যান। সেখানে ভাইবোন ও স্বজনের সঙ্গে দেখা করে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন তারা। পরে বাবা-মার কবর জিয়ারত করেন। এ সময় পুরো বাড়িতে এক আবেগঘন পরিবেশের সৃষ্টি হয়।

এ সময় ভাঙা ভাঙা বাংলায় আনোয়ারা ওরফে মল্লিকা বলেন, ‘মা-বাবার জন্য খারাপ লাগছে। তবে ৪০ বছর পর আমি আমার শিকড়ের সন্ধান পেয়েছি। অনেক খুশি আমি।’

ছুলেমান নেছার হারিয়ে যাওয়া বোনকে জড়িয়ে ধরে বলেন, ‘৪০ বছর পর বোন ফিইরা আইছে। এত দিন ভাবছিলাম বোনডা মইরা গেছে। ওরে পাইয়া এখন কইলজাডা ঠান্ডা অইয়া গেছে।’

ভাই ছুতু মিয়া বলেন, ‘বোনকে খোঁজে পেয়ে আমরাও অনেক খুশি।’

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সাহাবুল আলম জানান, বিষয়টি খুবই আবেগের। সিনেমায় দেখা যায় হারিয়ে যাওয়া সন্তানকে বহু বছর পর ফিরে পেতে। কিন্তু বাস্তবে এমন ঘটনা ঘটবে ভাবতেও পারেননি তিনি।

 

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
 
A- A A+ Print this E-mail this
আপনার পছন্দের এলাকার সংবাদ
পড়তে চাই:
Fairnews24.com, starting the journey from 2010, one of the most read bangla daily online newspaper worldwide. Fairnews24.com has the highest journalist among all the Bangladeshi newspapers. Fairnews24.com also has news service and providing hourly news to the highest number of online and print edition news media. Daily more then 1, 00,000 readers read Fairnews24.com online news. Fairnews24.com is considered to be the most influencing news service brand of Bangladesh. The online portal of Fairnews24.com (www.fairnews24.com) brings latest bangla news online on the go.
৪৮/১, উত্তর কমলাপুর, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
ফোন : +৮৮ ০২ ৯৩৩৫৭৬৪
E-mail: info@fns24.com
fnsbangla@gmail.com
Maintained by : fns24.net