তাজা খবর:

পায়রা সেতুর ৮৪০ মিটার দৃশ্যমান                    আমতলীতে সড়ক দুর্ঘটনায় আহত ৪০                    নিউজিল্যান্ডে সন্ত্রাসী হামলায় আহত কিশোরগঞ্জের লিপি লাইফ সাপোর্টে                    লক্ষ্মীছড়িতে দুর্গম ভোট কেন্দ্রে হেলিকপ্টারে নির্বাচনী সরঞ্জাম                    রাজশাহীতে বাড়ির সামনেই মিললো নিখোঁজ অটোচালকের ক্ষতবিক্ষত লাশ                    রাবি শিক্ষক ড. শফিউল হত্যা মামলার রায় শিগগিরই                    সিরাজদিখানে গৃহবধূর আত্মহত্যা                    “পায়রা বন্দরের মাধ্যমে পুরো বাংলাদেশকে আমরা সেবা দিতে চাই”                    সরকারী কলেজের সাড়ে ৩,শ শিক্ষার্থীর ভবিষ্যত অন্ধকারে                    আগৈলঝাড়ায় নারীদের নৌকা বাইচ                    
  • মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯, ৫ চৈত্র ১৪২৫

রাজবাড়ীতে ৪১ ভরি স্বর্ণালংকার সহ যুবক আটক

রাজবাড়ীতে ৪১ ভরি স্বর্ণালংকার সহ যুবক আটক

রাজবাড়ীর কালুখালীতে ৪১ ভরি স্বর্ণালংকার সহ এক যুবক কে আটক করা হয়েছে।

১২ টাকার ইনজেকশন হাজার টাকায় বিক্রি

১২ টাকার ইনজেকশন হাজার টাকায় বিক্রি

নগরীতে ১২ টাকার একটি ইনজেকশন এক হাজার টাকায় বিক্রির অভিযোগে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে

ঈশরদী মদ পানে বাবা ছেলের মৃত্যু

ঈশরদী মদ পানে বাবা ছেলের মৃত্যু

ঈশ্বরদী শহরের রেলগেটস্থ হরিজন পল্লীতে বিয়ের অনুষ্ঠানে বিষাক্ত বাংলা মদ (চুয়ানি) পান করে

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্ব সমাজকর্ম দিবস উদযাপন

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্ব সমাজকর্ম দিবস উদযাপন

‘মানবিক সম্পর্কের গুরুত্ব সম্পর্কে উৎসাহ’ এই স্লোগানকে সামনে রেখে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে বিশ্ব সমাজকর্ম

রাষ্ট্রপতির দেয়া নিয়োগ শর্তের তোয়াক্কাই করছেনা বেরোবির উপাচার্য

এফএনএস (ইভান চেšধুরী; বেরোবি,রংপুর) :

07 Mar 2019   04:41:39 PM   Thursday BdST
A- A A+ Print this E-mail this
 রাষ্ট্রপতির দেয়া নিয়োগ শর্তের তোয়াক্কাই করছেনা বেরোবির উপাচার্য

মহামান্য রাষ্ট্রপতির দেয়া নিয়োগ শর্তের তোয়াক্কাই করছেননা বেগম রোকেয়া বিশ^বিদ্যালয়ের (বেরোবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহ। উপাচার্য হিসেবে যোগদানের পর থেকে ৬২৩ কার্যদিবসে উপস্থিত ছিলেন মাত্র ১০৫ দিনের মতো। রাষ্ট্রপতির দেয়া চার শর্তের প্রথম শর্তই হচ্ছে উপাচার্য হিসেবে তাঁকে সার্বক্ষণিক ক্যাম্পাসে অবস্থান করতে হবে। কিন্তু রাষ্ট্রপতির দেয়া  শর্তের বারবার অবমাননা করে ক্যাম্পাসে অনুপস্থিত থাকছেন উপাচার্য কলিমউল্লাহ।
এদিকে দিনের পর দিন ক্যাম্পাসে উপাচার্য অনুপস্থিত থাকায় ভেঙ্গে পড়েছে বিশ^বিদ্যালয়ের চেইন অফ কমান্ড। শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা-কর্মচারীদের দাবি উপেক্ষা করে অধিকাংশ সময় ক্যাম্পাসে না থাকায় উপাচার্যের বিরুদ্ধে বিভিন্ন মহলে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। আর, উপাচার্যের অনুপস্থিতিকে কাজে লাগিয়ে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অতিরিক্ত সুবিধা নিচ্ছেন কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারী।
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ২০১৭ সালের ১ জুন চার শর্তে বেগম রোকেয়া বিশ^বিদ্যালয়ের চতুর্থ উপাচার্য হিসেবে প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহকে নিয়োগ দেন মহামান্য রাষ্ট্রপতি। নিয়োগ প্রাপ্তির ১৩ দিন পর ১৪ জুন যোগদান করেন তিনি। রাষ্ট্রপতির দেয়া চার শর্তের প্রথমটি ছিল উপাচার্য সার্বক্ষণিক ক্যাম্পাসে অবস্থান করবেন। কিন্তু, যোগদানের পর থেকে নিয়োগের এই শর্ত অমান্য করে ধারাবাহিকভাবে ক্যাম্পাসে অনুপস্থিত থাকছেন তিনি। ১৪ জুন যোগদানের পর ৬২৩ কার্যদিবসের মধ্যে উপাচার্য ক্যাম্পাসে ছিলেন মাত্র ১৫০ দিনের মতো। এর মধ্যে ২০১৭ সালের ছয়মাসে ৬৯ দিন, ২০১৮ সালের ১২ মাসে ৭১ দিন এবং চলতি বছরের গত দুই মাসে ৭ দিন ক্যাম্পাসে ছিলেন তিনি।
বিশ^বিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, বিশেষ কারণ ছাড়া ক্যাম্পাসে আসেন না উপাচার্য। সাধারণত, সভা-সেমিনারের উদ্বোধন, দায়িত্ব অর্পণ, আইডি কার্ড বিতরণ ও কিছু জাতীয় কর্মসূচিতে ক্যাম্পাসে আসেন তিনি। আর, এভাবে মাঝে মাঝে আসলেও সকালে এসে দুপুরে, অথবা দুপুরে এসে রাতে কিংবা রাতে এতে সকালে ক্যাম্পাস ত্যাগ করেন তিনি। তিনি যোগদানের পর অধিকাংশ সিন্ডিকেট সভা, শিক্ষক নিয়োগ বোর্ড, কর্মকর্তা নিয়োগ বোর্ড ও কর্মচারী নিয়োগ বোর্ড ঢাকা লিয়াজু অফিসে অনুষ্ঠিত হয়েছে। আর, নিয়োগ প্রাপ্তির পর তিনি কয়েকটি বিভাগের বিভাগীয় প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। এসময় জরুরী প্রয়োজনে বিভাগীয় প্রধানের স্বাক্ষর নিতে অনেক শিক্ষার্থীকে ঢাকায় যেতে হয়েছে। তিনি প্রায় ২৫ টি কোর্সের ক্লাস নিতেন। মাঝে মাঝে রাতের বেলায় শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ডাকতেন তিনি। আর, ওই সব কোর্সের পরীক্ষা গ্রহণ করতেন উপাচার্যের পিএ আবুল কালাম আজাদ। এসব কোর্সের পরীক্ষার খাতা কে মূল্যায়ন করেন তা নিয়েও রয়েছে নানান প্রশ্ন।
এদিকে, যোগদানের পর প্রশাসনিক ক্ষেত্রে ব্যাপক রদবদল করেন উপাচার্য। এতে, অনেক শিক্ষক ও কর্মকর্তা বঞ্চিত হন। আবার, অনেকেই দুই-তিন এমনকি চারটি পর্যন্ত প্রশাসনিক পদে দায়িত্ব পান। এছাড়া, অনেক কর্মকর্তাকে সুনির্দিষ্ট কোনো কারণ ছাড়াই অঘোষিতভাবে ওএসডি করে রেখেছেন উপাচার্য। তারা মাসের পর মাস কোনো কাজ করার সুযোগ পাচ্ছেন না। তাদের নিজেদের দপ্তরের কাজ করছেন উপাচার্যের আনুকূল্যে থাকা ৪/৫ জন কর্মকর্তা।
এতে, শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে উপাচার্যের বিরুদ্ধে চাপা অসন্তোষ বিরাজ করছে। আসতে আসতে তাদের অসন্তুষ্টির বিষয়টি প্রকাশ্য রুপ নিচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় উপাচার্যের পিএস আমিনুর রহমানকে অব্যাহতি ও সংস্থাপন শাখার উপ রেজিস্ট্রার খন্দকার গোলাম মোস্তফাকে ওই শাখা থেকে সরানোসহ ১১ দফা দাবিতে স্মারকলিপি দিয়েছে অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন। আর, উপাচার্য যোগদানের পর শিক্ষকদের মধ্যে যারা তাঁর আশপাশ ঘিরে ছিলেন তারাও এখন তাঁর অনুপস্থিতির বিষয়টি মানতে পারছেন না।
নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক শিক্ষক বলেন, উপাচার্য বিশ^বিদ্যালয়ের অভিভাবক। তাঁর নেতৃত্বে শিক্ষক-কর্মকর্তারা কাজ করে বিশ^বিদ্যালয়কে এগিয়ে নেবেন এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু, উপাচার্য যোগদানের পর থেকে বিশ^বিদ্যালয়ের উন্নয়নে দৃশ্যমাণ কিছু করেননি। তিনি মাসের পর মাস ক্যাম্পাসে না থাকায় একাডেমিক ও প্রশাসনিক ক্ষেত্রে বিশৃংখলা সৃষ্টি হয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে বিশ^বিদ্যালয় দিন দিন পিছিয়ে পড়বে। আর এক শিক্ষক বলেন, উপাচার্য রাষ্ট্রপতির দেয়া নিয়োগের শর্ত মেনেই যোগদান করেছেন। কিন্তু যোগদানের পর থেকেই তিনি নিয়োগের শর্ত অমান্য করছেন। তিনি এখানে জাস্ট টাইম পাস করছেন।
এদিকে, উপাচার্যের ধারাবাহিক অনুপস্থিতির কারনে বিশ^বিদ্যালয়ের চেইন অফ কমান্ড একেবারেই ভেঙ্গে পড়েছে। নিয়মিত অফিস করছেন না কিছু কর্মকর্তারা। সপ্তাহে রবিবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৫ দিন সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অফিসে থাকার কথা। কিন্তু, গত ১০ কর্মদিবস সরেজমিনে প্রশাসনিক ভবনে গিয়ে দেখা যায়, কিছু কর্মকর্তা সঠিক সময়ে আসলেও অনেকেই আসছেন বেলা ১১ টার পর। আবার, বিকেল ৩ টা বাজার সাথে সাথে অনেকেই অফিস ত্যাগ করছেন। আর, দুই/তিন কর্মকর্তা মাসে ৮/১০ দিন অফিস করছেন। এতে, প্রশাসনিক সুবিধা পেতে বিড়ম্বনার শিকার হচ্ছে শিক্ষার্থীরা। কয়েকজন শিক্ষার্থী জানান, প্রশাসনিক ভবনে জরুরী কাজে গিয়ে অনেক কর্মকর্তাকে অফিসে পাওয়া যায়না। তাদের স্বাক্ষরের জন্য ফাইল রেখে আসতে হয় অথবা ফোন দিয়ে ডেকে আনতে হয়।
এবিষয়ে জানতে চাইলে বেরোবি অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, উপাচার্য ক্যাম্পাসে থাকেন না সে বিষয়টি সবার জানা। বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়নে সবার আন্তরিকতা দরকার।
বিশ^বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি প্রফেসর ড. গাজী মাজহারুল আনোয়ার বলেন, দীর্ঘদিন থেকে আমরা বিষয়টি প্রত্যক্ষ করছি। শিক্ষক সমিতির সভায় বিষয়টি আলোচিত হয়েছে। আমরা এবিষয়ে উপাচার্যের সাথে আবার কথা বলব। সার্বিক বিষয়ে জানতে উপাচার্য প্রফেসর ড. নাজমুল আহসান কলিমউল্লাহর মুঠোফোনে কল দেয়া হলে তিনি রিসিভ করেননি।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
 
A- A A+ Print this E-mail this
আপনার পছন্দের এলাকার সংবাদ
পড়তে চাই:
Fairnews24.com, starting the journey from 2010, one of the most read bangla daily online newspaper worldwide. Fairnews24.com has the highest journalist among all the Bangladeshi newspapers. Fairnews24.com also has news service and providing hourly news to the highest number of online and print edition news media. Daily more then 1, 00,000 readers read Fairnews24.com online news. Fairnews24.com is considered to be the most influencing news service brand of Bangladesh. The online portal of Fairnews24.com (www.fairnews24.com) brings latest bangla news online on the go.
৪৮/১, উত্তর কমলাপুর, মতিঝিল, ঢাকা-১০০০
ফোন : +৮৮ ০২ ৯৩৩৫৭৬৪
E-mail: info@fns24.com
fnsbangla@gmail.com
Maintained by : fns24.net