fairnews24 Logo

মেঘনায় তেল বোঝাই ট্যাংকার ডুবি, পরিবেশ বিপর্যয়ের আশংকা

এফএনএস (মোঃ আমিরুল ইসলাম নয়ন; গজারিয়া, মুন্সীগঞ্জ) | 08 Oct 2018   07:39:19 PM   Monday
 মেঘনায় তেল বোঝাই ট্যাংকার ডুবি, পরিবেশ বিপর্যয়ের আশংকা

মুন্সীগঞ্জের গজারিয়া উপজেলাধীন রঘুরচর গ্রাম সংলগ্ন মেঘনা নদীতে গত শুক্রবার রাতে তেল বোঝাই একটি ট্যাংকার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ট্যাংকারটিতে থাকা প্রায় ২০ হাজার লিটার অপরিশোধিত তেল মেঘনা নদীতে ছড়িয়ে পড়ে।

স্থানীয়দের সাথে বলে জানা যায়, বেঙ্গল ইলেকট্রনিক্স লি. নামে একটি বেসরকারি কোম্পানি তাদের উৎপাদিত তেল অন্যত্র পাঠানোর জন্য ট্যাংকারটিতে লোড করে রঘুরচর গ্রাম সংলগ্ন মেঘনা নদীতে রেখেছিল । এমত অবস্থায় শুক্রবার রাতে আকস্মিক ঝড়ের কবলে পড়ে তা ডুবে যায়।

সরজমিনে সোমবার দুপুরে ঘটনাস্থলে গিয়ে বেঙ্গল ইলেকট্রনিক্স লি.-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো: সালামত উল্লাহর সাথে কথা হলে তিনি জানান, তেলবাহী ট্যাংকারটির ডুবার পূর্বে খালি ছিল। ট্যাংকারে থাকা সামান্য পরিমাণ তেল নদীতে ছড়িয়ে পড়েছে।

তবে নদীতে ভাসমান তেলের পরিমাণ ও স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানা যায়, ডোবার সময় ট্যাংকারটিতে তেল ভর্তি ছিল। ঘটনার প্রায় তিন দিন পার হলেও নদীর বিভিন্ন অংশে তেল ভাসতে দেখা গেছে। ভাসমান এ তেলে বিষক্রিয়ায় নদীর বিভিন্ন অংশে মাছ মরে ভেসে থাকতে দেখা গেছে। দ্রুত এই তেল অপসারণ না করা হলে পরিবেশের উপর বিরূপ প্রভাব পড়বে বলে মনে করছে স্থানীয়রা।

রঘুরচর গ্রামের বাসিন্দা জামাল উদ্দিন জানান, শনিবার সকালে নদীতে তারা তেল ভাসতে দেখতে পান। নদীর কয়েক কিলোমিটার এলাকায় পানি, ভাসমান কচুির পানা, নদীর তীর তেলে কালো হয়ে আছে। এমত অবস্থায় নদীর পানিতে গোসল বা দৈনন্দিন কাজে এ পানি ব্যবহার করতে পারছেন না তারা।

স্থানীয় জেলে আক্তার হোসেন জানান, এ ঘটনার পর নদীর বিভিন্ন অংশে মাছ মরে ভেসে থাকতে দেখেন তিনি। এ ঘটনার পর নদীর এই অংশে আর আগের মত মাছ পাওয়া যাচ্ছে না।

রঘুরচর গ্রামের জোছনা বেগম জানান, আগে রান্নার কাজে মেঘনা নদীর ব্যবহার করতেন তিনি তবে নদীর পানিতে ভাসমান তেল থাকায় তা আর এখন ব্যবহার করা যাচ্ছে না। এমত অবস্থায় রান্নার পানি নিয়ে বিপাকে পড়েছেন তিনি।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মুক্তার হোসেন জানান, দ্রুত এই তেল অপসারণের ব্যবস্থা না নেওয়া হলে এ এলাকার পরিবেশের উপর বিরূপ প্রভাব পড়বে। এমত অবস্থায় বিষটির প্রতি দৃষ্টি দিতে প্রশাসনের প্রতি আহবান জানান তিনি।

এদিকে বিষয়টি সম্পর্কে গজারিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তাসমিন জেবিন বিনতে শেখ জানান, বিষয়টি তিনি আজই অবগত হয়েছেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে পরিবেশ অধিদপ্তরের সাথে কথা বলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কপিরাইট © 2018-12-10 এফএনএস২৪.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত।